কাজের জন্য ভবন ভাঙ্গতে হলে ভাঙ্গবে : এমপি একরাম

, সালাহ উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী : ঢাকাস্থ নোয়াখালী সমিতির পক্ষ থেকে পরিষদের নব নির্বাচিত সামছুদ্দিন জেহানকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। শনিবার বিকেলে কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান হয় ।

সদর উপজেলা সমিতির খালেদ মাহমুদ ইব্রাহিম রাসেলের সভাপতিত্বে ও এডভোকেট মানছুরুল হক শাফীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নোয়াখালী ের সাধারণ সম্পাদক এমপি । বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লক্ষীপুর ৫ আসনের মেজর আবদুল মান্নান (অবঃ) ।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, আরো বক্তব্য রাখেন হায়দারী সুলতানা রোজিনা, আবদুল হান্নান তপন, আশিক মাহমুদ শাহীন, কুতুব উদ্দিন নান্নু,কাজী মিজান বাবলু, আজিজুর রহমান আজিজ।

এসময় নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান এ.কে.এম সামছুদ্দিন জেহানকে সম্মাননা স্মারক এবং ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয় ।
এর আগে সদর উপজেলা সমিতির সদস্য ফরম ক্রয় করে একরামুল করিম চৌধুরী সমিতির আজীবন সদস্য পদ গ্রহণ করেন । এসময় তিনি বলেন, আগের উপজেলার চেয়ারম্যান ব্যর্থতার কারনে আপনি উপজেলার চেয়ারম্যান হয়েছেন ।

প্রথমত আপনি যদি আপনার আত্নীয়করন ভুলে যান! আপনি যদি সন্ত্রসীদের নেতা না হন! আপনি যদি নিরপক্ষতা বজায় রাখেন! আপনি যদি সন্ত্রাস দমন করতে পারেন! আপনি মানুষকে হৃদয় থেকে ভালোবাসতে পারেন! আপনি যদি দূর্নীতিটাকে কমিয়ে রাখতে পারেন! সন্ত্রাস ও মাদককে বন্ধ করতে পারেন! একজনের কষ্টের টাকায় কেনা জমি আরেকজন যেন করতে না পারে! এইসবগুলো করতে পারেন তাহলে আপনার থেকে কেউ এই উপজেলার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিতে পারবেনা।
আপনি উন্ন্য়নের কথা চিন্তা করতে হবে না, উন্নয়ন আমি আপনাকে নিয়ে করব,ডিসেম্বর, জানুয়ারী, ফেব্রুয়ারি এই তিন মাসের মধ্যে সদর উপজেলার রাস্তা-ঘাট একটাও কাঁছা থাকবে না।

আমার স্বপ্ন নোয়াখালীতে একটি বিমান বন্দর করা হবে। কুমিল্লা থেকে সোনাপুর পর্যন্ত ফোর লাইনের কাজ চলমান রয়েছে। ফোর লাইনের জন্য কারো ভবন যদি ভাঙ্গতে হয় তাহলে ভাঙ্গতে হবে। আমি ডিসিকে বলে দিয়েছি আমার আট একটা ভবন আছে সেইটা আগে ভাঙ্গতে হবে। ঢাকাস্থ সদর উপজেলা সমিতিকে আরো গতিশীল হতে হবে যাতে নোয়াখালীর মানুষ ঢাকায় আসলে যে কোন বিপদে আপদে তাদেরকে সহযোগিতা করতে পারে।

তিনি আরো বলেন নোয়াখালীতে কারিগরি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী ক্যাডেট কলেজ ও কর্মজীবি মহিলা হোস্টেল করা হবে। ের চেয়ারম্যানের উদ্যেশে তিনি বলেন আপনারা দেখে শুনে চেয়ারম্যান প্রদান করুন , যেন কোন রোহিঙ্গা এই দেশে কোন সার্টিফিকেট না পাই।