করোনাতেও থেমে নেই 'চাল চুরি', দেশজুড়ে চাল চুরির যত অভিযোগ!

  • ক্রাইম প্রতিদিন ডেস্ক
  • ২০২০-০৪-১১ ২০:১৯:৫২
image

‘কয়লার কালো যায় না ধূলে, স্বভাব যায় না মল্যে’ এরকম এটি প্রবাদ আছে। বস্তু বা ব্যক্তির নিজ নিজ স্বভাবকে বোঝানো হয়েছে এ প্রবাদের মাধ্যমে।

বর্তমানে করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে সরকার সারাদেশে মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে। এতে বিপাকে পড়েছেন দরিদ্র শ্রেণির মানুষ। তাদের দুর্দশা লাঘবে সরকার খাদ্যবান্ধব ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করছে। নির্বাচিত ডিলারদের মাধ্যমে এসব চাল জনগণ কিনতে পারবেন।

এই চাল নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই। কোথাও কোথাও ডিলাররা চাল বক্রির সময় ওজনে কম দিচ্ছেন। কোথাও খাদ্য গুদামের কর্মকর্তা নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছেন। কোথাও ব্যবসায়ীর গুদামে মিলছে খাদ্যবান্ধব চাল। আবার কোথাও ডিলার নিজেই চুরি করে সংরক্ষণ করছেন বা বেচে দিচ্ছেন অন্যত্র। স্থানীয় জনগণ বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সেসব চাল উদ্ধার করে মুখোশ উন্মোচন করে দিচ্ছেন অসাধু ব্যক্তিদের।

এসব অসাধু ব্যক্তিরা কম বেশি সরকার দলীয় রাজনীতির সাথে জড়িত। এদের কেউ চেয়ারম্যান, কেউ কাউন্সিলর, কেউবা জনপ্রতিনিধির আত্মীয়-নিকটজন। দেশের এই সঙ্কটকালে যেখানে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে মানবতার পরিচয় দেবেন- নিজেকে বিকশিত করবেন, সেখানে উল্টো চাল চুরি করে দরিদ্রের ভাগ মেরে খেয়ে নিজেকেসহ নিকটআত্মীয়দের মুখেও কালিমা লেপন করছেন।

সম্প্রতি ক্রাইম প্রতিদিন এর প্রতিনিধিদের পাঠানো অনেকগুলো রিপোর্টে উঠে এসেছে এসব চাল চালিয়াতদের কথা।

অবৈধভাবে ওএমএসের চাল বিক্রি, আওয়ামী নেতা গ্রেপ্তার : জয়পুরহাটে অবৈধভাবে বিক্রি ও সরবরাহের অভিযোগে ওএমএসের চালসহ আওয়ামী লীগ নেতা ও তার শ্যালককে হাতে নাতে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) বিকেলে আক্কেলপুরের গোপীনাথপুর বাজার থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জয়পুরহাট র‌্যাব-৫ ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাইমেনুর রশিদ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- গোপীনাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সাইদুর ও তার শ্যালক আনোয়ার হোসেন।

নাটোরে ত্রাণের চালসহ ইউপি সদস্য আটক : নাটোরের সিংড়ায় ত্রাণের ১৩ বস্তা চালসহ এক ইউপি সদস্যসহ তিন জনকে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার সুকাশ ইউনিয়নের বোয়ালিয়া বাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

এসময় সুকাশ ইউপির ৬নং ওয়ার্ড সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন শাহ্, চাল ব্যবসায়ী গোলাম ও চালের ডিলার লেবুকে আটক করা হয়।

সিংড়া থানা ওসি নূর আলম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে চাল ব্যবসায়ী গোলামকে বোয়ালিয়া এলাকায় আট বস্তা চালসহ স্থানীয়রা আটক করে। পরে তারা প্রশাসনকে বিষয়টি জানায়।

মণিরামপুরে ৫৫৫ বস্তা সরকারি চাল জব্দ, আটক ২ : যশোরের মণিরামপুরে ৫০ কেজি ওজনের ৫৫৫ বস্তা সরকারি চাল জব্দ করেছেন উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (৪ এপ্রিল) বিকেলে মনিরামপুরের বিজয়রামপুর ভাই ভাই রাইস মিল থেকে চালের বস্তাগুলো উদ্ধার করা হয়। সেসময় ওই মিলের মালিক আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং ট্রাক ড্রাইভার ফরিদ উদ্দীনকে আটক করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ শরিফী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘চালটা সরকারি, তবে এই মুহূর্তে বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না। মিলের মালিক আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ট্রাক চালক ফরিদ উদ্দীনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।’

নোয়াখালীতে খাদ্যবান্ধব চাল জব্দ, ডিলার পলাতক : নোয়াখালীতে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আটক করেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ডিলার মোসলেহ উদ্দিন পলাতক রয়েছেন।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়নের সোনাপুর-বাংলাবাজার সড়ক থেকে রিকশাবোঝাই চাল জব্দ করা হয়।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম সরদার।

ইউএনও আরিফুল ইসলাম সরদার বলেন, ‘সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ইউনিয়ন পর্যায়ে ডিলারদের মাধ্যমে ১০ টাকা মূল্যে হতদরিদ্রদের মাঝে চাল বিলি করা হয়। নিয়ম অনুযায়ী একজন সরকারি কর্মকর্তার উপস্থিতিতে (ট্যাগ অফিসার) নির্দিষ্ট স্থানে প্রকাশ্যে এ চাল বিলি করার কথা। নোয়াখালীতে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল আটক করেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ডিলার মোসলেহ উদ্দিন পলাতক রয়েছেন।’

ঝালকাঠিতে ত্রাণের আড়াই টন চাল উদ্ধার : ঝালকাঠির সদর উপজেলায় এক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যের বাড়ি থেকে দুস্থ মানুষের জন্য সরকারের দেওয়া আড়াই টন ত্রাণের চাল উদ্ধার করেছে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন।

রোববার (৫ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে গোপন সংবাদে সদর উপজেলার বাসন্ডা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মো. মনিরুজ্জামান মনিরের বাড়ি থেকে চাল উদ্ধার হয়।

ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এনডিসি আহমেদ হাসান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মনিরের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এসময় ত্রাণের আড়াই টন চাল উদ্ধার করা হয়। চালগুলো সরকারি বস্তা খুলে অন্য বস্তায় রাখা হয়েছিলো। তবে খালি বস্তাগুলোও একই স্থান থেকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারকৃত চালের আনুমানিক মূল্য এক লাখ টাকা। চাল উদ্ধারের সময় ইউপি সদস্য বাড়িতে ছিলেন না।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে হতদরিদ্রদের চাল উদ্ধার : ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় খাদ্য অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত ‘হতদরিদ্রদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১৬ বস্তা চাল ডিলারের দোকান থেকে উদ্ধার করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এই চাল উদ্ধার করে।

খাদ্যবান্ধব চাল কালো বাজারে, ডিলার আটক : সরকারের খাদ্যবান্ধবের এক হাজার ২৭০ কেজি চাল (৪২ বস্তা) কালো বাজারে বিক্রির অভিযোগে ডিলার মুজিবর সানাকে আটক করেছে পুলিশ। সাতক্ষীরার আশাশুনির বড়দল বাজার থেকে তাকে আটক করা হয়।

বুধবার (১ এপ্রিল) সকালে আশাশুনি থানার (ওসি) আব্দুস সালাম তাকে আটক করেন।

এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, বড়দল ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা রণজিত কুমার মন্ডল ও ইউনিয়ন খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আশরাফ হোসেন।

চট্টগ্রামে ব্যাবসায়ীর গুদামে বিক্রয় নিষিদ্ধ চাল : চট্টগ্রামে এক চাল ব্যাবসায়ীর গুদাম থেকে বিপুল পরিমাণ সরকারি বিক্রয় নিষিদ্ধ চাল জব্দ করেছে পুলিশ।

বুধবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানার ঈদগাহ কাঁচা রাস্তার মুনমুন কমিউনিটি সেন্টারের গলির ভিতরে বিসিক গোডাউনে অভিযান চালিয়ে চাল উদ্ধার করা হয়। গোডাউনটি স্থানীয় চাল ব্যাবসায়ী ফারুক ট্রেডার্সের মালিক মোহাম্মদ ফারুকের।

মেট্রোপলিটন পুলিশের পশ্চিম বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার শ্রীমা চাকমার নেতৃত্বে গোডাউনটিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

দেশের দুর্যোগের সময় মানুষকে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। চাল চুরি নয়, বরং বিলিয়ে দিয়ে মানুষকে বাঁচাতে হবে। এ বিষয়ে জনপ্রতিনিধিদের আরো এগিয়ে আসা উচিত। ভোটের সময় তারা নানা কথার ফুলঝুরি ছড়ান। এখন সময় এসেছে নিজেকে প্রমাণ করার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও জনপ্রতিনিধিদের নিজ এলাকার মানুষকে সহায়তা করতে এলাকায় থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। এখন প্রশ্ন হলো- মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে অনন্য করবেন নাকি চুরিদারি করে স্বভাব জানান দেবেন?

নিউজটি শেয়ার করুন


নিউজ সম্পর্কে মতামত লিখুন


 
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ