‘কয়ডা ভাতের আশায় চায়ের ফ্লাক্স হাতে করে ঘুরে ঘুরে চা বিক্রি করছি’

  • ক্রাইম প্রতিদিন ডেস্ক
  • ২০২০-০৫-০৩ ১৪:৩৩:২৪
image

‘সংসারে অভাব, তার ওপর মেয়ে ক্যানসারে আক্রান্ত। ছোট একটি চায়ের দোকান আছে সেটাও এক মাস হলো বন্ধ। লজ্জায় কারও কাছে হাত পাততে পারি না। কয়ডা ভাতের আশায় চায়ের ফ্লাক্স হাতে করে ঘুরে ঘুরে চা বিক্রি করছি।’ এভাবেই নিজের সংকটের কথা বলছিলেন মাগুরা শহরের নতুন বাজার সাহা পাড়ার বাসিন্দা সন্তু অধিকারী।

২০ বছর ধরে চা বিক্রি করেন তিনি। তা দিয়েই চলে সংসার। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে দোকান বন্ধ। রোববার (৩ মে) সকালে চায়ের ফ্লাক্স হাতে বাজারে ঘুরে ঘুরে চা বিক্রি করতে দেখা যায় তাকে। বাসা থেকে গরম পানিতে চা তৈরি করে এনেছেন। ওয়ান টাইম কাপে করে পথচারী, মুদি দোকানিদের কাছে চা বিক্রি করছেন।

সন্তু অধিকারী জানান, এক মাস হলো দোকান বন্ধ রয়েছে। সংসার চলে না। কি খাবেন। এক দিকে করোনাভাইরাসের ভয়। অন্যদিকে পেটে ক্ষুধার জ্বালা। তাই জীবনের ঝঁকি নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন।

তিনি বলেন, প্রথমে ২০ দিন বসেছিলাম। লোক লজ্জার কারণে কারও কাছে হাত পাতিনি। একবার ত্রাণ পেয়েছিলাম। কিন্তু তাতে কয়দিন চলে?

শিবরামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রকাশ সাহা বলেন, শুধু সন্তু অধিকারীই নয় তার মত আরও অনেকে লজ্জার কারণে কারও কাছে কিছু চাইতে পারছেন না। পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে দিন কাটছে। এসব মানুষের প্রতি সরকার ও বিত্তবানদের সহযোগিতার হাত আরও প্রসারিত করার আহ্বান জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন


নিউজ সম্পর্কে মতামত লিখুন


 
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ