শিক্ষিকাকে পেটালেন আওয়ামী লীগ নেতা!

  • বগুড়া প্রতিনিধি
  • ২০২০-০২-১০ ১৬:৩২:০৫
image

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অবস্থিত ভাদাইলহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা রেখা খাতুনকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত ওই আওয়ামী লীগ নেতার নাম আকবর আলী। তিনি উপজেলার শ্যামগাতী গ্রামের আবু বক্কার সরকারের ছেলে ও  মথুরাপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

ঘটনার শিকার রেখা খাতুন উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের পিরহাটি গ্রামের স্কুল শিক্ষক আবু সাইদের স্ত্রী। এ ঘটনায় রেখা খাতুন বাদী হয়ে গতকাল রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি)  রাত ১০টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতা আকবর আলীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, উপজেলার শ্যামগাতী গ্রামের আবু বক্কার সরকারের ছেলে আকবর আলী মথুরাপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বর  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। তার সঙ্গে স্কুলশিক্ষক আবু সাইদের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ রয়েছে। পিরহাটি গ্রামে আবু সাইদের বাড়ির রাস্তা অবৈধভাবে দখল নিয়ে রবিবার বিকেলের দিকে সেখানে পাকা ঘর নির্মাণ করছিলেন আকবর আলী। এতে বাধা দেন আবু সাইদের স্ত্রী রেখা খাতুন। এ সময় ক্ষুব্ধ হয়ে আকবর আলী ও তার লোকজন রেখা খাতুনকে পিটিয়ে জখম করেন। চিৎকার শুনে স্বজনরা এগিয়ে এসে রেখাকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

এ ঘটনায় রেখা খাতুন বাদী হয়ে রাতেই আকবর আলী ও তার ছেলেসহ তিনজনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

এদিকে, থানা থেকে অভিযোগ তুলের নেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগ নেতা আকবর আলী শিক্ষক দম্পতিকে হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ঘটনার শিকার পরিবারটি।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা আকবর আলী বলেন, 'আমি আমার নিজের সীমানায় পাকা ঘর নির্মাণের কাজ করছিলাম। কিন্তু শিক্ষিকা রেখা অবৈধভাবে বাধা দেওয়ার একপর্যায়ে তার সঙ্গে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে। অথচ থানায় আমার বিরুদ্ধে শিক্ষিকাকে পেটানোর মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।  

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন,  প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। 

 
এ জাতীয় আরো খবর