ঢাকা থেকে পুরুষ হয়ে স্ত্রী-ছেলেসহ বাড়ি ফিরলেন হেনা!

  • ক্রাইম প্রতিদিন ডেস্ক
  • ২০২০-০৩-১৪ ২৩:৩৩:২৩
image

মাদারীপুরের শিবচরের সেরেলা আক্তার হেনা ১৫ বছর পর বাড়ি ফিরলেন সেলিম রেজা হয়ে। নারী থেকে পুরুষে রূপান্তরিত হয়ে ফিরে আসায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। তাকে একনজর দেখার জন্য এলাকার মানুষ ভিড় করছে তার বাড়িতে। যদিও পুরুষে রূপান্তরিত হওয়া সেলিম রেজার দাবি হরমনজনিত কারণেই তার এই পরিবর্তন হয়েছে।

সেরেলা আক্তার হেনা ওরফে সেলিম রেজা শিবচর উপজেলার নিলখী ইউনিয়নের চরকামারকান্দি গ্রামের সেকান্দার খানের সন্তান।

প্রায় ১৫ বছর আগে বাবা-মায়ের সঙ্গে সেরেলা আক্তার হেনা নামে এক কিশোরী ঢাকায় বসবাস শুরু করে। সেখানে লেখাপড়াও করে সে। পাশাপাশি পল্লী চিকিৎসকের কোর্সও করে জীবিকার জন্য। এরই মধ্যে ২০১২ সালের দিকে হঠাৎ করেই নিজের শারীরিক পরিবর্তনসহ পুরুষভাব লক্ষ্য করতে থাকে। পরে সেখানকার একজন চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয় সে। তখন হরমোনজনিত কারণে এ পরিবর্তন হচ্ছে বলে জানান সেই চিকিৎসক এবং ওষুধ দেন। তবে ধীরে ধীরে হেনা পুরুষে রূপান্তরিত হতে থাকেন। নাম পাল্টে রাখেন সেলিম রেজা। গত পাঁচ বছর আগে বিয়েও করেন তিনি। তার এক সন্তানও রয়েছে। বর্তমানে সেলিমের বয়স ৩০ বছর।

কামারকান্দি গ্রামে প্রতিবেশী আসমা বেগম বলেন, সেলিম আগে মেয়ে ছিল। নাম ছিল হেনা। আমাকে নানী বলে ডাকতো। ঢাকা যাওয়ার পর সেখানেই ওর শারীরিক পরিবর্তন হলে ও মেয়ে থেকে ছেলে হয়ে গেছে বলে শুনেছি। এর পর ও বিয়ে করেছে। কয়েকদিন হলো স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে গ্রামে এসেছে।

পুরুষে রূপান্তরিত সেলিম রেজা (হেনা) বলেন, আমি মেয়ে হয়েই জন্ম নিয়েছিলাম। তবে বয়ঃসন্ধির সময় থেকে লক্ষ্য করতাম অন্য মেয়েদের মতো আমার মেয়েলি পরিবর্তন হচ্ছে না। প্রায় ৮ বছর আগে আমার মধ্যে হঠাৎ করে অনেক পরিবর্তন শুরু হলে চিকিৎসকের কাছে যাই। তখন চিকিৎসকরা জানান আমার হরমোনজনিত সমস্যার কারণে এমনটা হচ্ছে।

হরমোনজনিত হোক বা যেকোনো রোগের জন্য হোক, সৃষ্টিকর্তা আমাকে মেয়ে থেকে সম্পূর্ণ পুরুষে রূপান্তরিত করে দিয়েছেন। আমি বিয়ে করেছি। আমার একটি ছেলেও রয়েছে। একজন পূর্ণাঙ্গ পুরুষ যেভাবে চলাফেরা করেন, আমিও ঠিক সেভাবেই চলাফেরা করছি।

 
এ জাতীয় আরো খবর